বৃহস্পতিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২০, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

শায়েস্তাগঞ্জে টানা লোডশেডিং-ভূতুড়ে বিল, অতিষ্ঠ জনজীবন

নিজেস্ব প্রতিনিধি:: শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের বিভ্রাটে জনজীবনে চরম ভোগান্তি নেমে এসেছে। বৃষ্টি নেই, দমকা হাওয়া নেই তারপরও বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে। এছাড়া এই করোনাকালেও রয়েছে ভুতুড়ে বিলের অভিযোগ। স্বাভাবিকভাবে একজন গ্রাহকের যত বিল আসে কারো কারো দুইগুণ তিনগুণ বেশি ও বিল এসেছে, ফলে বিপাকে আছেন অনেক গ্রাহকরা।

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার অলিপুরের বাসিন্দা রবিন মিয়া জানান, গত মাসে তিনি প্রতিদিন বিকাল ৪টায় দোকান লাগিয়ে চলে গেছেন, অথচ তার বিল এসেছে আগের চেয়ে দ্বিগুণ। আবার কেউ কেউ বলছেন পল্লীবিদ্যুতের কর্মচারীরা সরেজমিনে না এসে অফিসে বসেই করছে মনগড়া মিটারের রিডিং। তাই অতিরিক্ত বিল আসছে। তারা বিদ্যুৎ কর্মচারীদের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ আনেন।

এদিকে বেশ কিছুদিন ধরেই উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে একবার বিদ্যুৎ গেলে আসতে প্রায় ২ থেকে ৩ ঘন্টা সময় লাগে। আবার কখনো সারারাত কিংবা দিনব্যাপী চলে বিদ্যুতের লুকোচুরি খেলা। সম্প্রতি এই সমস্যা আরো প্রকট আকার ধারণ করছে। প্রতিদিন মানুষ লোডশেডিং এর কবলে পড়ে ৪-৫ বার। আর রাতের বেলা, ভোর রাত, কিংবা প্রচন্ড রোদেও ২-৩ ঘন্টা বিদ্যুৎ থাকে না। গরমের দিনে বিদ্যুতের এই সমস্যার কারণে মানুষ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন।

এছাড়া বিদ্যুতের এই বিভ্রাটের কারণে চরম ক্ষতির সম্মুখীন এই উপজেলার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, অফিস, দোকান-পাটসহ স্কুল-কলেজ ও মাদরাসার ছাত্রছাত্রীরা। প্রায় সময় বিদ্যুৎ না থাকার কারণে ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্রনির্ভর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের কাজ যথাসময়ে সম্পন্ন করতে পারছে না এবং অফিসের সকল কাজও বন্ধ থাকে এই বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে। প্রচন্ড গরমে অতিষ্ঠ হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠছেন শায়েস্তাগঞ্জের সাধারণ মানুষ। আবার কেউ কেউ পল্লীবিদ্যুতের এমন দায়সারা নীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন করারও প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মোতাহের হোসেন জানান, ‘আমাদের একটি পাওয়ার ট্রান্সমিটার নষ্ট ছিল সেজন্য কিছু লোডসেডিং হয়েছে। আজকে পাওয়ার ট্রান্সমিটারটি ঠিক করা হয়েছে। আগামীকাল থেকে লোডশেডিং অনেকাংশেই কমে যাবে। আর ভূতুড়ে বিলের বিষয়ে তিনি বলেন, করোনায় আমাদের জনবল সংকট ছিল, সবাই ঠিকমত রিডিং লিখে আনতে পারেননি। যাদের অতিরিক্ত বিল এসেছে, অভিযোগ জানালে তাদের বিল অবশ্যই সংশোধন করে দেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


আমাদের ফেইসবুক পেইজ